বলিউড তারকাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা কার কতোদূর?

               

তারকাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা বেশ কৌতুহলের বিষয়। কে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ল? কে কোন ডিগ্রি নিলো? ড্রপ দিলো নাকি? এত ব্যস্ততার মাঝে এত পড়াশুনা! এতসব কৌতুহল মেটাতে বলি পড়ার তারকাদের শিক্ষাগত যোগ্যতার খোঁজ খবর দেওয়া হলো:

             অমিতাভ বচ্চন: 
 

বলিউডের তারকাদের হিসেবের খাতা খুললে তো তার নাম প্রথমে আসবে, সেটাই স্বাভাবিক। বলিউড শাহেনশাহ কিন্তু শিক্ষাদীক্ষাতেও কম নয়। বাবা বিখ্যাত ভারতীয় কবি হরিবংশ রাই বচ্চন। তার ছেলে অমিতাভ কলা বিভাগে নৈনিতালের শেরউড কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন৷ এরপর সায়েন্স, আর্টস দুটি বিভাগেই দিল্লির কিরোরী মল কলেজ থেকে ডিগ্রি নিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডক্টরেটও রয়েছে।

                         

আমির খান:

মিস্টার পারফেকশনিস্ট কিন্তু পড়াশুনায় পারফেকশনিস্ট ছিলেন না। মুম্বাইয়ের নারসি মনজি কলেজ থেকে মাত্র ১২ তম স্টান্ডার্ড শেষ করেছেন। দৌড়টা খুব বেশি হয়নি। ক্লাসে ছিলেন অনিয়মিত। বেশিরভাগ সময়টা তিনি নাটক নিয়েই ব্যস্ত থাকতেন। একটা সময় তো সিনেমাতেই ব্যস্ত হয়ে পড়লেন। ব্যাস পড়াশুনার চ্যাপ্টার ক্লোজ।

                 সালমান খান: 

ব্যাচেলর ডিগ্রিটা নেওয়া হয়নি সালমানের। মুম্বাইয়ের বান্দ্রার ন্যাশনাল কলেজ থেকে ড্রপ আউট ছাত্র আজকের সল্লু। সালমান পড়াশোনা শুরু করেছেন গোয়ালিয়রের স্কিডয়া স্কুল দিয়ে। পরে মুম্বাই, বান্দ্রার সেন্ট স্টেনিসলাস হাইস্কুলে পড়েছেন। সালমানের পরিবার শোবিজ জগতের। বাবা সেলিম খান একজন প্রখ্যাত অভিনেতা ও চিত্রনাট্যকার। ছোটবেলা থেকেই তাকে নিয়ে তার পরিবারের ভাবনা ছিল কবে অভিষেক হবে বলিউডে। তাই সেভাবেই তার শুরু হয়ে গেল।

                           

শাহরুখ খান: 

কিং খান পড়াশুনাতে তেমন খারাপ ছিলেন না। দিল্লির হ্যান্সরাজ কলেজ থেকে অর্থনীতিতে গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি নিয়েছেন শাহরুখ। পরবর্তীতে নয়াদিল্লীর জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া কলেজে গণযোগাযোগ বিষয়ে মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি হন। তবে অভিনয়ে ব্যস্ততার জন্য আর সে ডিগ্রি সম্পন্ন করা হয়নি।

ঋত্বিক রোশান: 

মুম্বাইয়ের সিডেনহাম কলেজ থেকে কমার্সে গ্রাজুয়েশন। এর আগে মুম্বাই স্কটিশ স্কুলে। সিনেমায় কবে নাম লেখাবেন সেই অপেক্ষায় ছিলেন। পড়াশুনাটা ছিল জীবনের ফোর্থ সাবজেক্ট।

অক্ষয় কুমার: 

খিলাড়ির মনোযোগটা ছিল খেলাধুলায়। পড়াশুনার প্রতি বিশেষ মনোযোগটা কখনো ছিল না। মুম্বাইয়ের কিংস সার্কেলে ডন বসকো হাইস্কুল এবং গুরু নানক খালসা কলেজে পড়েছেন কিছুদিন। কলেজ থেকে বেরিয়ে ব্যাংককে মার্শাল আর্ট শিখতে চলে গেছেন। তারপর চাকরীর জীবন। এমনকি বাংলাদেশের হোটেল পূর্বাণীতেও রয়েছে তার কাজের অভিজ্ঞতা।

                               

        রণবীর কাপুর: 

কাপুর খানদানের সন্তান বলিউডে পা রাখাটা ছিল সময়ের ব্যাপার। তাই কোবোমতে চালিয়ে গেছেন শিক্ষাজীবন। মুম্বাই স্কটিশ স্কুল দিয়ে শুরু। গ্রাজুয়েশন করেছেন মুম্বাই এইচ আর কলেজ থেকে। নিউইয়র্কের লি স্ট্রাসবার্গ থিয়েটার এন্ড ফিল্ম ইনস্টিটিউটে অ্যাক্টিং মেথডে কোর্সও সম্পন্ন করেছেন।

ইমরান হাশমী: 

এমরান ছিলেন সাদামাটা ছাত্র। সিডেনহাম কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন। মুম্বাই ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হয়েছিলেন। তবে তা শেষ করতে পারেননি।
               

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *